• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বুধবার | ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | বর্ষাকাল | দুপুর ১:০৭
  • আর্কাইভ

হাতিয়ার ভোটকেন্দ্র রামগতিতে, রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা 

৩:১৬ অপরাহ্ণ, জুন ০৩, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার হরনী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনের ৪টি ভোটকেন্দ্র লক্ষ্মীপুরের রামগতির চরগাজী ইউনিয়নের স্থাপন নিয়ে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। এতে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকাও করছেন তারা। তবে নির্বাচন নিয়ে কোন সদুত্তর দিতে না পারলেও লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন বলছে, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় তারা সতর্ক রয়েছেন। ১৫ জুন হরণী ইউপিতে নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে।

এনিয়ে বৃহস্পতিবার (২ জুন) চরগাজী ইউনিয়নের মীর আদর্শ গ্রাম, তেগাছিয়া বাজার ও টাংকি বাজারে বিক্ষাভ মিছিল করে স্থানীয় বাসিন্দা, ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা। বিক্ষোভ থেকে তাদের দাবি ছিল, ‘হরণি ইউনিয়নের ভোটকেন্দ্র কোনভাবেই চরগাজীতে মেনে নেওয়া হবে না’। মীর আদর্শ গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও টাংকি বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র এলাকায় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এসব এলাকার শতভাগ ভোটার রামগতির।

ভোট কেন্দ্র ৪টি সরিয়ে নিতে চরগাজী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তাওহীদুল ইসলাম সুমন সম্প্রতি ঢাকায় নির্বাচন কমিশনের সচিবের কাছে লিখিত আবেদন করেন। কমিশনের নির্দেশনায় ২৬ মে নোয়াখালী নির্বাচন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন সরেজমিন ভোট কেন্দ্র এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

স্থানীয় লোজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মোহাম্মদপুর তেগাছিয়া বাজার ও টাংকি বাজারে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশের তত্ত্বাবধানে ২টি ক্যাম্প রয়েছে। এতে স্থিতিবস্থার পরও হরণীর ভোটকেন্দ্রগুলো স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ভোট কেন্দ্রগুলো তারা হরণী ইউনিয়ন এলাকায় সরিয়ে নিতে দাবি জানিয়েছে। কোনভাবেই তারা বিষয়টি মেনে নেবে না বলে জানায়।

চরগাজী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাওহীদুল ইসলাম সুমন বলেন, আমাদের ইউনিয়নে হরনীর বাসিন্দা নেই। ভোটকেন্দ্রগুলো সরিয়ে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন দফতরে আবেদন করেছি। কিন্তু নেওয়া হচ্ছে না। ভোট কেন্দ্র সরিয়ে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কার্যকরী সিদ্ধান্তের প্রত্যাশা করছি।

রামগতি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াহেদ বলেন, ইউপি নির্বাচন হবে পাশের উপজেলা হাতিয়ায় আর কেন্দ্র হবে রামগতিতে এটা হতে পারে না। এনিয়ে আদালতেরও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। বর্তমানে ভোট কেন্দ্র নিয়ে শান্তি-শৃঙ্খলা ভঙ্গের আশংকা রয়েছে।

নোয়াখালী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন জানান, ভোট কেন্দ্রগুলো সরেজমিন পরিদর্শন করা হয়েছে। এসময় সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলা হয়। ওই কেন্দ্রগুলো নিয়ে সরকারি গেজেটও রয়েছে। কেন্দ্রগুলো সরানো সম্ভব নয়।

লক্ষ্মীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) পলাশ কান্তি নাথ বলেন, ভোটকেন্দ্রগুলো সরিয়ে নিতে স্থানীয়রা বিক্ষোভ করেছে শুনেছি। তাদের দাবি ছিল, হাতিয়ার ভোট কেন্দ্র যেন তাদের এলাকায় না হয়। এনয়ে যেন আইন-শৃৃঙ্খলার অবনতি যেন না ঘটে সেদিকে আমাদের লক্ষ্য রয়েছে।

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনোয়ার হোছাইন আকন্দ বলেন, চরগাজীর তিনটি বিদ্যালয়ে হরণির ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছি। ওই এলাকায় কোন বিশৃঙ্খলা ও আইন-শৃঙ্খলার অবনতি যেন না হয়, পুলিশ প্রশাসনসহ আমরা সতর্ক রয়েছি। সীমানা বিরোধ দ্রুত সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে আমরা চিঠি পাঠিয়েছি।

নির্বাচন নিয়ে ডিসি বলেন, নির্বাচন নিয়ে নোয়াখালীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাই বলতে পারবেন। স্থানীয়রা নির্বাচন হতে দেবে না, এ ধরণের কোন পরিস্থিতি আমাদের জানা নেই। তবে আমরা সতর্ক রয়েছি।

প্রসঙ্গত, রামগতির চরগাজী ইউনিয়নের তিনটি মৌজা নিয়ে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার সঙ্গে সীমানা বিরোধ রয়েছে। এনিয়ে লক্ষ্মীপুর সাব জজ আদালতে মামলা (৭৩৯/২১) চলমান। মামলাটি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিরোধীয় এলাকায় স্থিতিবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেন আদালত। কিন্তু আগামি ১৫ জুন হাতিয়ার হরণী ইউপি নির্বাচনের ৪টি ভোট কেন্দ্র চরগাজীতে স্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কেন্দ্রগুলো হলো- চরগাজীর টাংকি বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর তেগাছিয়া বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোল্লা গ্রাম নূরানী মাদ্রাসা ও মীর আদর্শ গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com