• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার | ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | রাত ৩:০২
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরে বড় ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন সাজা

৩:১৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ২৭, ২০২২

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের বড় ভাই আবদুল হান্নানকে (২৫) কুপিয়ে হত্যার দায়ে ছোটভাই আবদুল মান্নানকে (২৩) যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রহিবুল ইসলাম রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আদালতে আসামী আবদুল মান্নান উপস্থিত ছিল। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জেলা জজ আদালতের সরকারী কৌঁশুলী অ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বড়ভাই হান্নানকে হত্যার ঘটনা আদালতে দোষী সাবস্ত হওয়ায় তার ছোটভাই মান্নানকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে বিচারক।

মামলার বাদি ভিকটিক হান্নান এবং আসামী মান্নানের বাবা মো. আবুল কালাম (৬৩)। ২০১৯ সালের ১৯ ফ্রেব্রুয়ারী রাত পৌণে ১২ টার দিকে নিজ বসতঘরে ছোটভাই মন্নানের দায়ের কোপের আঘাতে খুন হয় বড় ভাই হান্নান।

মামলার এজাহার এবং আদালত সূত্র জানায়, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার পার্বতীনগর ইউনিয়নের চর পার্বতীনগর গ্রামের আনু মুন্সি বাড়ির বাসিন্দা আবুল কালামের দুই ছেলে আবদুল হান্নান ও আবদুল মান্নান। হান্নানকে বিয়ে করানের পর থেকে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। বড় ভাই হান্নান তার স্ত্রীকে নিয়ে মান্নানের প্রতি সন্দেহ পোষণ করে। ঘটনার রাতে হান্নান তার ছোটভাইকে বসতঘরের জানালার পাশে দেখতে পেয়ে তার স্ত্রী সাথে ঝগড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে তাকে মারধর করে। এ সময় জানালার পাশে থাকা ছোট ভাই মান্নান একটি দা নিয়ে হান্নানের ঘরে ঢুকে। কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে মান্নান তার বড়ভাই হান্নানের ঘাড়ে দা দিয়ে কোপ দেয়। দায়ের কোপে হান্নানের ঘাড়ে বেশিরভাগ অংশ আলাদা হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

ভোররাতে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়।

এ ঘটনায় তাদের পিতা আবুল কালাম বাদি হয়ে ২০ ফেব্রুয়ারী ছোট ছেলে মান্নানকে বিবাদী করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরদিন পুলিশ মান্নানকে গ্রেফতার করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়।

২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সেই সময়ের সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রানা দাস আসামী মান্নানকে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

আদালত সাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে মান্নানকে দোষী সাবস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দেন।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com