• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার | ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শরৎকাল | রাত ৮:৩৭
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

৯:০০ অপরাহ্ণ, ডিসে ২৯, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার : স্থানীয় ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে আবেদন করায় ক্ষুব্দ হয়ে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার  ৯ নং উত্তর জয়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী নুর মোহাম্মদ (৬৫) নামের সনদপ্রাপ্ত এক মুক্তিযোদ্ধাকে বাথরুমে আটকে রেখে মারধর সহ লাঞ্চনা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার বেলা ১২টার দিকে উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে প্রকাশ্য এ ঘটনা ঘটে। চেয়ারম্যানের মারধরে আহত মুক্তিযোদ্ধাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। খবর পেয়ে লক্ষ্মীপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন স্তরের সুধিজন আহত মুক্তিযোদ্ধাকে দেখতে সদর হাসপাতালে ছুটে যান। এ ঘটনায় প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা ঘটনায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। এদিকে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করার অভিযোগের বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, নুর মোহাম্মদের বিরুদ্ধে কৃষি অফিসের জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে। এ কারণে তাঁকে ইউপি কার্যালয়ে ডেকে আনা হয়। জমি দখলের বিষয়ে জানতে চাইলে নুর মোহাম্মদ ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে তাঁর দিকে তেড়ে এলে উপস্থিত লোকজন প্রতিরোধ করে। তিনি বলেন, ‘আমি তাকে (মুক্তিযোদ্ধা) মারধর করিনি, তবে তাকে নিরাপত্তা দিতে একটি কক্ষে আটক করে রাখি। ওই কক্ষ থেকে তুলাগাছ বেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় তুলাগাছের কাঁটায় আহত হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।’
জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ূন কবির বলেন, ‘বিজয়ের মাসে একজন মুক্তিযোদ্ধা নির্যাতিত হবেন—এর চেয়ে দুঃখজনক ঘটনা আর কিছুই হতে পারে না। আর এ কাজে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে মুক্তিযোদ্ধাবান্ধব সরকারের একজন দায়িত্বশীল নেতা ও জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে। আমি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।’
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, নুর মোহাম্মদসহ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের একটি তালিকা কিছুদিন আগে তাঁর কাছে দিয়ে যান। মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করার কথা তিনি শুনেছেন।
এ বিষয়ে লক্ষ্মীপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) খন্দকার গোলাম শাহ নেওয়াজ বলেন, হাসপাতালে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। তাঁর পরিবারের লোকজনকে মামলা করতে বলা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com