• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • শুক্রবার | ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | গ্রীষ্মকাল | রাত ২:০৪
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরের চরশাহীতে নির্মাণাধীন স্থাপনা ভাঙচুর, লুটপাট

১:৩৬ অপরাহ্ণ, জানু ১৭, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লক্ষ্মীপুরের চরশাহী ইউনিয়নের দক্ষিণ নুরুল্যাপুর গ্রামে নির্মাণাধীন স্থাপনা ভেঙে দিয়ে মালামাল লুটের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সকালে এবং গভীর রাতে স্থানীয় আবুল হাসেম ও তার পুত্র মাছুম, মনির, রিয়াজ এবং তার ভাই বাবুল, বাসার ও নুর হোসেন সহ আরও ৮/১০ জন লোক এ ভাঙচুর করেছে বলে জানায় ভুক্তভোগীরা।
জানা গেছে, চরশাহীর নুরুল্যাপুর গ্রামের খাগুড়িয়া মৌজার প্রায় সাড়ে ৪ শতাংশ জমিতে স্থাপনা নির্মাণ শুরু করে কালা মুন্সিগং। ওই জমি নিজেদের দাবি করে আবুল হাসেম, তার ভাই ও তার পুত্ররা বাধা দেয়। শনিবার সকালে তারা নির্মাণাধীন স্থাপনার একটি অংশ ভেঙে দেয়। রাতে তারা সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নির্মাণাধীন দেওয়াল গুঁড়িয়ে দিয়ে সেখানে থাকা সিমেন্ট ও কাজের মালামাল লুটে নেয়।
স্থানীয়দের অভিযোগ, আবুল হাসেম ও তার ছেলেরা খারাপ প্রকৃতির লোক। অহেতুক তারা কালা মুন্সিদের জমি নিজেদের দাবি করে সেখানে ভাংচুর চালিয়েছে।
কালা মুন্সি জানান, জমি নিয়ে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে আমারদের পক্ষে রায়ও হয়েছে। সে রায়ের ভিত্তিতে আমরা আমাদের পূর্ব পুরুষের জমিতে স্থাপনা নির্মাণ করি। আবুল হাসেম জমি না পেয়ে এখন আমাদের কাছে চাঁদা দাবি করছে। চাঁদা না দেওয়ায় স্থাপনা ভাঙচুর করে লুটপাট চালিয়েছে। তাদের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা আমাদের প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে । কয়েক বছর আগে তারা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এতে আমি এবং আমার ভাই কবির হোসেনকে বেধড়ক পিটিয়েছে।
এদিকে আবুল হোসেন ও তার পুত্ররা জমি নিজেদের দাবি করে বলেন, আমরা আমাদের জমিতে স্থাপনা নির্মাণ করছি। তারা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে।
অন্যদিকে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, জমির প্রকৃত মালিক মৃত নুর মিয়ার ওয়ারিশ কালা মুন্সিগংরা। জমিতে কালামিয়া ও তাদের অন্য ওয়ারিশরা ঘর নির্মাণ করতে গেলে আবুল হাসেমেরা বাধা দেয়।
Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com