• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার | ৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | রাত ২:৪১
  • আর্কাইভ

রামগতিতে নিখোঁজের ২০ দিন পর গৃহবধূর গলিত মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক

৯:৩২ অপরাহ্ণ, অক্টো ১৪, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক:

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে নিখোঁজ হওয়ার ২০ দিন পর একটি পরিত্যক্ত টয়লেট থেকে পারুল বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার  সন্দেহে পুলিশ ওই গৃহবধূর স্বামী মো.হোসেনকে আটক করে। পারিবারিক কলহের জের ধরে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলে জানায় পুলিশ। ঘটনার পর থেকে গৃহবধূর  শ্বাশুড়ী পলাতক রয়েছেন।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার চর সেকান্তর এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

আটককৃত স্বামী মো.হোসেন সুজন গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার চর সেকান্তর এলাকায় অবস্থিত একটি মোবাইল ফোন টাওয়ারের কাটাতার বেষ্টিত সীমানার ভেতরের পরিত্যক্ত টয়লেটের ভেতরে অর্ধগলিত নারীর মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয় । সন্ধ্যায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মরদেহটি উদ্ধার করে। এসময় নিহতের স্বজনরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পারুল বেগমকে সনাক্ত করেন।

নিহতের স্বজনরা জানান, গত ২০ দিন থেকে শ্বশুর বাড়ি থাকা অবস্থায় পারুল বেগম নিখোঁজ রয়েছেন। এ বিষয়ে পারুলের বাবার পরিবার থেকে জানতে চাইলে তার স্বামী ও শ্বাশুড়ি তার বিরুদ্ধে অপবাদ দিয়ে জানায় সে কারো সাথে পালিয়ে গেছে।

এসময় স্বজনরা আরো জানায়, বিভিন্ন সময়ে তার স্বামী ও শ্বাশুড়ি নানা অজুহাতে পারুলকে মারধর করতো। তাদের ধারনা তাকে হত্যা করে মরদেহ গুম করে রাখা হয়েছে।

রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি তদন্ত)আলমগির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,নিহত গৃহবধূর স্বামীকে আটক করা হয়েছে। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। তদন্ত করে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com