• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | গ্রীষ্মকাল | বিকাল ৫:৫৯
  • আর্কাইভ

মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মসজিদের ইমামকে মারধর মাদকসেবীর

৮:০৯ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রু ২৬, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : মসজিদে মাদকের কুফলের বিষয়ে আলোচনা করায় চিহ্নিত এক মাদকসেবির হামলার শিকার হয়েছে মাওলানা আবু নায়িম ওসমান নামে এক ইমাম। তিনি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের আটিয়াতলী গ্রামের আবু বকর জামে মসজিদের ইমমতি করেন। গত বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় স্থানীয় মাদকসেবী ও এসিড মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি রকির হাতে মারধরের শিকার হন তিনি।

এ ছাড়া ওই মাদকসেবী কর্তৃক বিভিন্ন হুমকির মুখে আছেন ভুক্তভোগী ইমাম আবু নায়িম। এ ঘটনার বিচারের দাবি ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে সমাবেশ করেন স্থানীয় ইমামগণ।
শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ে আয়োজিত সমাবেশে এলাকায় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় আবু বকর ছিদ্দিক জামে মসজিদ এর ইমাম মাওলানা আবু নাইম ওসমান বলেন, একই এলাকার মৃত হাবিব উল্যার পুত্র মো: রকি ও তার ভাই মনোয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার বিকেলে তার উপর হামলা চালিয়ে তাকে নাজেহাল করে।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, সম্প্রতি তিনি মসজিদে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে মাদকের কুফল নিয়ে আলোচনা করেন এবং সমাজ থেকে মাদক নির্মূলে সকলকে সোচ্ছার হওয়ার আহবান জানান। এর পর থেকে বখাটে রকি তাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে এবং এলাকা থেকে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়।
তার কথা রাজি না হওয়ায় সেই তার ভাইকে নিয়ে তার উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় সদর থানায় দুই ভাইকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ দায়ের করার পর থেকে রকি আরও বেপরোয়া হয়ে শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) সকালে তার বাড়ি গিয়ে তাকে হুমকি দিয়ে আসে। অবিলম্বে রকি গ্রেফতার না করলে তিনি প্রাণ ভয়ে আছেন বলে জানান তিনি।
এলাকাবাসী জানায়, রকি একজন মাদকসেবী ও ব্যবসায়ী তার বিরুদ্ধে একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। কয়েক বছর আগে সে ও তার ভাই এসিড নিক্ষেপ মামলায় সাজা ভোগ করে কারাগার থেকে বের হয়ে এলাকায় বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িয়ে পড়ে।
এছাড়া কোরআন ও ইসলাম বিরোধী বক্তব্য দিয়ে এলাকায় বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও খতিবদের লক্ষ্য হামলা ও হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে।
ইতিমধ্যে এলাকায় ১১ বর্তমান ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুর রহমান আরিফের বাড়ির দরজায় মক্তবের ইমাম খোরশেদ আলমের উপর হামলা করে। তার হামলার স্বীকার হয়ে একই এলাকার খাসের বাড়ির মসজিদের ইমাম মো: আবদুল্লাহ এলাকায় ছেড়ে চলে যায়।
মোহাম্মদীয়া জামে মসজিদের ইমাম মো: মাহমুদুল ইসলামকে রাতে মোবাইলে ফোন দিয়ে এলাকা ছেড়ে চলে নির্দেশ দেয় তার কথা না শুনলে প্রকাশ্যে হামলার করার হুমকি দেয়। একই এলাকার দুদু মিয়া মসজিদের ইমাম রুহুল আমিন রকির অত্যাচারে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।
লক্ষ্মীপুর জেলা কারাগারের ইমাম হোসাইন আহমেদকে ধর্মীয় বিরোধী বিভিন্ন প্রশ্ন করে এলাকায় ধমীয় কর্মকান্ড না চালাতে নির্দেশ দেয়। একই ধরনের অভিযোগ করেন ওই মসজিদের খতিব হোসেন কবির।
এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ড  কাউন্সিলর মাকছুদুর রহমান আলমগীর বলেন, রকি এলাকায় বিভিন্ন মসজিদের ইমামদের উপর হামলা করে। সেই ইসলাম ও ধর্মীয় বিরোধী মন্তব্য করে। তার বিরুদ্ধে মাদক মামলা রয়েছে। গতকাল মাওলানা আবু নাইম ওসমান নামে ইমামের উপর হামলা করে। তার হামলা ও হুমকির কারনে এলাকা থেকে ৩ ইমাম চলে গেছে। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবী জানাই।
Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com