• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার | ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শীতকাল | দুপুর ২:৩৫
  • আর্কাইভ

ভবানীগঞ্জ ইউপি নির্বাচন : রনিকে সমর্থন জানিয়ে প্রচারণায় হালিম মাষ্টার ও ফজলু

৮:৫৮ অপরাহ্ণ, ডিসে ১৮, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের ভবানীগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বি অন্য দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী। সমর্থন জানিয়ে তিন প্রার্থী এক হয়ে একজনের পক্ষে ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন। তারা তিনজনই আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র হিসেবে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। এতে দল থেকে তাদের বহিষ্কারও করা হয়েছে।

দুই প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থন পাওয়া প্রার্থী হলেন ওই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল হাসান রনি। চশমা প্রতীকে নির্বাচন করছেন তিনি। সমর্থন দেওয়া দুইজন হলেন ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আবদুল হালিম মাষ্টার (মোটরসাইকেল) ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান ঢালী (রজনীগন্ধা)।
শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) রাতে তারা তিন প্রার্থী একজোট হয়ে চশমা প্রতীকের পক্ষে ইউনিয়নের বিভিন্নস্থানে প্রাচরণা চালিয়েছেন।
জানা গেছে, চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন ১১ জন। এর মধ্যে বিএনপি ঘরোনার প্রার্থী শাহ মো. এরমান আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। বাকী ১০ জনের মধ্যে ৬ জনই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালেক বাদলকে। দলের সাধারণ নেতাকর্মীরা তাকে মেনে নিতে পারেন নি।
তৃণমূলের নেতাদের মধ্যে থেকে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে ৬ জন বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। তাদের অভিযোগ, জেলা এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ যোগ্য ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে অযোগ্য লোককে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন। ফলে তারা জোটবদ্ধ হয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হয়েছেন।
চেয়ারম্যান পদে রজনীগন্ধা প্রতীকের প্রার্থী ফজলুর রহমান ঢালী বলেন, আমরা ৬ জন প্রার্থী হয়ে প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর যে যার মতো করে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে গেছি। এ সময় আমরা অনুধাবন করেছি ইউনিয়নের ভোটাররা চশমা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল হাসান রনিকে নির্বাচিত করতে চাচ্ছে। তার প্রতি ভোটারদের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে আমরা দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী সিদ্ধান্ত নিয়েছি তাকে সমর্থন জানিয়ে তার পক্ষে ভোট চাইবো।
মোটরসাইকেল প্রতীকের আবদুল হালিম মাষ্টার বলেন, জেলা এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ আমাদের প্রতি অবিচার করেছেন। অনৈতিকভাবে তারা অযোগ্য ব্যক্তিকে নৌক প্রতীক পেতে সাহায্য করেছেন। ইউনিয়নের ত্যাগী এবং জনপ্রিয় আওয়ামী লীগ নেতা থাকতেও তারা মনোনয়ন বোর্ডে আমাদের কারো নাম পাঠাননি। তাই আমরা ৬ জন সর্বসম্মতিক্রমে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। আমাদের অবস্থান নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে নয়, অযোগ্য ব্যক্তির বিরুদ্ধে এবং যোগ্য ব্যক্তির পক্ষে। তাই নির্বাচনের মাঝপথে এসে চশমা প্রতীকের পক্ষে আমরা সমর্থন জানিয়েছি। আশাকরি অন্য আরও দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আমাদের সাথে এক হয়ে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে।
চশমা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল হাসান রনি বলেন, বিগত ১০ বছর আমি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছি। এতে কিছু ভুলত্রুটি থাকতে পারে। জনগণ আমার সে ভুলকে ক্ষমার চোখে দেখে আবার আমাকে নির্বাচিত করতে চাচ্ছে। দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী আমাকে সমর্থন জানিয়ে এখন আমার সাথে প্রচারণা চালাচ্ছে। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমিই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবো।
উল্লেখ্য, আগামী ২৬ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এদিন সদর উপজেলার মোট ১৫ টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com