• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | সকাল ৮:২১
  • আর্কাইভ

নির্বাচন থেকে সরে যেতে রামগঞ্জের ইছাপুরের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আমির হোসেনকে হুমকি

১২:২৪ পূর্বাহ্ণ, নভে ২২, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আমির হোসেন খানকে নির্বাচন থেকে সরে যেতে হুমকিসহ ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহনাজ আক্তারের অনুসারী বহিরাগতরা আমিরের নেতাকর্মীদের প্রচার কাজে বাধা দিচ্ছে। তারা উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে ভোটের মাঠে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

রোববার (২১ নভেম্বর) বিকেলে শ্রীরামপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ তোলেন।

নির্বাচনে আমির হোসেন খান আনারস প্রতীকে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় গত ১৬ নভেম্বর তাকে দল থেকে বহিস্কার করে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

সংবাদ সম্মেলনে আমিরের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ইছাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুর মোহাম্মদ খান, ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক জামাল হোসেন সুমন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মিলন পাটওয়ারী ও ইছাপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রিপন ভূঁইয়াসহ তার কর্মী সমর্থকরা।

চেয়ারম্যান প্রার্থী আমির হোসেন নির্বিঘেœ নির্বাচনী প্রচারণার দাবি জানিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন ও ভোটগ্রহণের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন। একই সঙ্গে ভোটকেন্দ্রগুলো অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে ভোট চলাকালীন প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে সার্বক্ষণিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের দাবি জানান তিনি।

 

আমির হোসেন বলেন, নৌকার প্রার্থী শাহনাজ আক্তার জনবিচ্ছিন্ন। আমার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এটি মেনে নিতে না পেরে তার পক্ষে বহিরাগতরা এসে সভা-সমাবেশ করে আমার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন হুমকিমূলক বক্তব্য দিয়ে আসছে। আমার নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। নৌকার প্রার্থী প্রচারণায় আচরণ বিধি মানছেন না। পেশিশক্তি প্রদর্শন ও বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দিয়ে তারা নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে চাচ্ছে। এতে আমিসহ নেতাকর্মী-সমর্থক ও ভোটাররা আতঙ্কে রয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহনাজ আক্তার বলেন, নৌকা উন্নয়নের মার্কা। আমাদের পক্ষে ব্যাপক জনসমর্থন সৃষ্টি হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী কাউকেই কোনভাবে হুমকি প্রদর্শন করা হয়নি। উল্টো আমিরের নেতাকর্মীরা আমার নেতাকর্মীদের হেনস্তা করছে।

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ নভেম্বর ৩য় ধাপে রামগঞ্জ উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com