• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | রাত ২:৩৫
  • আর্কাইভ

উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নিজাম এর বিরুদ্ধে পাতানো এজেন্ডা বাস্তবায়ন’র অভিযোগ 

৪:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ১৩, ২০১৭

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মান্দারী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচনে ক্ষমতার অপব্যবহার ও পক্ষপাতিত্ব করে  সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নিজাম এর পাতানো এজেন্ডা বাস্তবায়ন’র অভিযোগ উঠেছে। উক্ত নির্বাচনে নিজাম উদ্দিন সোহেল প্রিজাইডিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন।

মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকালে বিদ্যালয়ের নব-নির্বাচিত সদস্যদের নিয়ে সভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য সভা আহবান করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিকক্ষ। এ সভায় নির্ধারিত এজেন্ডায় নির্বাচিত অভিবাবক সদস্য মোঃ ফারুক হোসেন সভাপতি পদে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম সালাউদ্দিন টিপুর নাম প্রস্তাব করেন।

নির্বাচিত অপর অভিবাবক সদস্য আব্দুর রহিম মিন্টু উক্ত প্রস্তাব সমর্থন করেন। এ সভায় আইন লংঘন করে সভার সভাপতিত্ব করেন প্রিজাইডিং অফিসার ও সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন সোহেল। তিনি উপজেলা চেয়ারম্যানের নাম বাদ দিয়ে অন্য প্রার্থীর নাম প্রস্তাব করার নির্দেশ দেন।

পরবর্তীতে শিক্ষক প্রতিনিধি আবুল কালাম স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহিমের নাম প্রস্তাব করলে অপর শিক্ষিকা শাহানা আক্তার উক্ত প্রস্তাব সমর্থন করেন। এরপর প্রিজাইডিং অফিসার সভায় কারো কোন মতামত না নিয়ে  মিজানুর রহিমকে  একক প্রার্থী দেখিয়ে সভাপতি নির্বাচিত করে সভা শেষ করে দ্রুত বিদ্যালয় ত্যাগ করেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আইন অনুযায়ী আমি উক্ত মিটিং এর সদস্য নই। তাই যা করেছেন প্রিজাইডিং অফিসার করেছেন এখানে আমার কোন ভূমিকা ছিলনা। এ ঘটনা নির্বাচিত সদস্য সহ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও অভিবাবকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে।

বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য ও কফিল উদ্দিন ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক সহিদুল ইসলাম জানান, প্রবিধান অনুযায়ী প্রিজাইডিং অফিসার সভার সভাপতিত্ব করার ও সভায় কোন মতামত দেওয়ার কোন সুযোগ না থাকলেও  তিনি তা করে আমাদের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছেন।  এ ব্যাপারে  নির্বাচিত অভিবাবক সদস্যদের পক্ষ থেকে রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও প্রিজাইডিং অফিসার নিজাম উদ্দিন সহেল বার বার ব্যস্ততা দেখিয়ে  কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ নুরুজ্জামান ছুটিতে থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন প্রবিধান মালার ৮ এর ২ উপ-প্রবিধান (১) এ বলা হয়েছে “আহুত সভায় উপস্থিত সদস্যগণের মধ্য হইতে তাহাদের দ্বারা মনোনীত ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে প্রতিযোগী নহে এমন একজন সদস্য সভায় সভাপতিত্ব করবেন। কিন্ত প্রিজাইডিং অফিসার নিজাম উদ্দিন সোহেল আইনের তোয়াক্কা না করে নিজেই সভাপতিত্ব করেন।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com