• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার | ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | গ্রীষ্মকাল | সকাল ৯:৩৫
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরে সড়ক দুর্ঘটনা-চাঁদাবাজি ও হয়রানি রোধে পুলিশের সভা

৩:৩৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রু ১৭, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরে ব্যাপক হারে সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনা, চাঁদাবাজি ও হয়রানি বেড়ে যাওয়ায়  পুলিশের অবস্থান জানান দিতে জনসচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রবিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি ) সকালে স্থানীয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে জেলা ট্রাফিক বিভাগ এর  আযোজনে শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকায় সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনা, চাঁদাবাজি ও হয়রানি রোধ করার লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।

এতে টি আই (ট্রাফিক প্রশাসন) মামুন আল আমিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপু, বিআরটিএ লক্ষ্মীপুর সার্কেলের সহকারী উপ-পরিচালক মো. আনোয়ার হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি কামাল উদ্দিন হাওলাদার, জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি নুর নবী চৌধুরী, সিএনজি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিশাদ ভূঁইয়া প্রমুখ।

পুলিশ সুপার তার বক্তব্যে পরিবহন চালক ও মালিকদের  উদ্দেশ্যে বলেন, পুলিশের সেবা নিন, চাঁদাবাজ থেকে দূরে থাকুন। রশীদ ছাড়া কোন ধরণের চাঁদা দিবেন না।

পুলিশের পক্ষ থেকে প্রতি মাসে দুই দিনব্যাপী চালকদের প্রশিক্ষণ ও ড্রাইভিং লাইসেন্সের বিষয়ে ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতা নেয়ার পরামর্শ দেন পুলিশের এ কর্মকর্তা। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গতি নিয়ন্ত্রণ, অতিরিক্ত যাত্রী না উঠানো, যত্রতত্র গাড়ী থামানো ও পার্কিংয়ের বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন তিনি। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারীও দেন পুলিশ সুপার।

প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীপুর জেলাব্যাপী মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নামে বিভিন্ন স্থানে একেকজন চালকের কাছ থেকে শতাধিক টাকা চাঁদা নেওয়া হয়। এছাড়া পুলিশের নামে জেলাব্যাপী সিএনজি অটোরিক্সা থেকে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা হারে চাঁদা আদায় করেন কতিপয় দালালরা। জেলার বিভিন্ন সড়কে প্রায় ১০ হাজার সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করে।

এসব অধিকাংশ গাড়ী ও চালকের বৈধ কোন কাগজপত্র নেই। ফলে প্রতিনিয়ত সড়কে দুর্ঘটনা ঘটে। গত দুই মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ২০ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হন। এসব ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসে উঠেন চালক ও সাধারণ মানুষ। দুর্ঘটনা ও চাঁদাবাজি রোধে একাধিক মানববন্ধনসহ প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও চালকরা।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com