• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | বসন্তকাল | সকাল ৮:০৫
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরের চরশাহীতে ইউপি সদস্য রফিকের সহযোগীতায় পাউবো’র জমি দখল করে ভবন নির্মাণ

৪:৩৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ১৩, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে ভবন নির্মাণ করেছে সৌদি প্রবাসী ইউসুফ নামে এক ব্যক্তি।

এ কাজে তাকে প্রত্যক্ষভাবে সহযোগীতা করেছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম। এছাড়া সরকারী সম্পত্তিতে বাড়ি নির্মাণ কাজের ঠিকাদারীও তিনিই নিয়েছেন। এতে মোটা অংকের চুক্তি করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এদিকে, সরকারী জমি দখলের ঘটনায় স্থানীয় তহশিলদার ইউপি সদস্যসহ অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে সদর ভুমি অফিসসহ চন্দ্রগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সৌদি প্রবাসী ইউসুফের মালিকানাধীন জমির সামনের অংশ পান্নি উন্নয়ন বোর্ডের সম্পত্তি। জমিটি লীজ নিতে প্রবাসীর স্ত্রী পলি আক্তারের নামে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করেন ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বার) রফিক। কিন্তু পলি আক্তারের নামে জমি লীজ দেওয়া না হলেও গত কয়েক মাস আগে তিনি ওই জমির উপর একতলা বিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণ করেন।

বিষয়টি স্থানীয় ভূমি অফিসের নজরে আসলে তহশিলদার গিয়ে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিলেও ইউপি সদস্য রফিক কাজ নির্মাণ অব্যাহত রাখেন। এছাড়া বেপরোয়া স্বভাবের ইউপি সদস্য ওই তহশিলদার সহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দও করেন বলে জানায় স্থানীয়রা।

অভিযোগ রয়েছে, জমি দখল করে দেয়ার জন্য তিনি কয়েক লাখ চুক্তি করেছেন। ফলে নিজেই লীজের আবেদন করে প্রত্যক্ষভাবে জমি দখলে সহায়তা করেন এবং নির্মাণ কাজ তিনিই করেন। একজন দায়িত্বশীল ইউপি সদস্য হয়ে সরকারী জমি দখল করায় তার দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

অবৈধ দখলদার প্রবাসী ইউসুফের স্ত্রী পলি আক্তার জমি দখলের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ভবনের সামনের অংশ পান্নি উন্নয়ন বোর্ডের জমি। কিন্তু জমিটি লীজের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

আবেদনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আবেদন মেম্বার সাহেব করেছেন। কাগজ ওনার কাছে। তিনিই সকল দায়িত্ব নিয়ে ভবন তৈরী করে দিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় লোকজন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বর্তমান সরকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার জন্য অভিযান চালাচ্ছেন। কিন্তু ইউপি সদস্য একজন দায়িত্ববান লোক হয়েও কিভাবে সরকারী জমি দখলে প্রত্যক্ষ মদদ দেন। তিনি নিজেই সরকারী জমিতে স্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করে দিয়েছেন। সরকারী জমি লীজ নিলেও সেখানে অস্থায়ীভাবে স্থাপনা নির্মাণের অনুমতি থাকে। ইউপি সদস্যের শ্লেল্টারে প্রবাসী ইউসুফের স্ত্রী সরকারী জমি দখল করার সাহস পেয়েছেন।

ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বলেন, দাসের হাট বাজার থেকে বেড়ির দুই পাশে অবৈধ দখলদার রয়েছে। তাই ইউসুফ নামের ওই ব্যক্তিও দখল করেছেন।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের সার্ভেয়ার নাজমুল মিঠু বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে নোটিশ দেওয়ার জন্য ঘটনাস্থল যাই। কিন্তু দখলদার কেউ সেখানে উপস্থিত ছিলো না, তাই নোটিশ পৌঁছানো সম্ভব হয়নি। স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য পুনরায় নোটিশ করা হবে। প্রয়োজনে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com