• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | রাত ১২:১৭
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরের চররুহিতায় গাছ কেটে জমি দখলের চেষ্টা, লুটপাট

৩:৩১ অপরাহ্ণ, অক্টো ০১, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে সফিকুল ইসলাম (৭০) নামে অবসরপ্রাপ্ত এক সেনা সদস্যের খরিদকৃত জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে। দখলদালরা জমিতে থাকা বিভিন্ন ফলজ গাছে ফল লুট করে নিয়ে যায়।

এ নিয়ে প্রতিবাদ করায় দখলদার আবু তাহেরগংরা নিরীহ পরিবারকে বিভিন্ন ধরনে হুমকী-ধমকী প্রদান করছে। এতে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে পরিবারটি। ঘটনাটি সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের চরমন্ডল কান্দুলিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, সদর উপজেলার চর মন্ডল মৌজার দিয়ারা ১২৯০ ও ১২৯১ নম্বর খতিয়ান ভুক্ত ৫১৭৩ এবং ৫১৭৪ নম্বর দাগে ২০০৭ সালের ২৩ এপ্রিল ৩৭৮৭ নম্বর ছাপ কবলা দলিল মুলে ৫৬ শতাংশ, ২০০৭ সালের ১৯ অক্টোম্বর ১০৩৫০ নম্বর ছাপকবলা দলিল মুলে ৪২ শতাংশ, ২০০৮ সালের ২৩ নভেম্বর ১২৪৩২ নম্বর ছাপ কবলা দলিল মুলে ১৮ শতাংশ, ২০১৩ সালের ১২ আগস্ট ৭৬৩৪ নম্বর ছাপ কবলা দলিল মুলে ৫ শতাংশ ও ২০১৭ সালের ১২ জুন ৫৬০৪ নম্বর ছাপ কবলা দলিল মুলে ৪ শতাংশ সহ মোট এক একর ২৫ শতাংশ জমি একই এলাকার শাহাজান চৌধুরী ও জাহাঙ্গীর পাটওয়ারীগংদের কাছ থেকে ক্রয় করেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য সফিকুল ইসলাম। জমিগুলো নামজারী জমা খারিজ করে ২৩৪৯ ও ৩২২৮ নম্বর খতিয়ান আলাদা করে সরকারী খাজনা পরিশোধ করে আসছেন। ওই জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির ফলজি ও বনজি গাছ রোপণ করেন সফিকুল ইসলাম।

অভিযোগ রয়েছে, সফিকুল ইসলামের ক্রয়কৃত ৪০ শতাংশ জমির ওপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে একই এলাকার প্রভাবশালী আবু তাহের গংদের। তারা ওই জমির মূল্যবান কিছু গাছ কেটে ও ফসল নষ্ট করে জমিটি দখলের চেষ্টা চালায়। বাঁধা দিলে নানাভাবে জমির মালিক সফিকুল ইসলামকে হুমকি দেয় তারা। ঘটনার পরে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য সফিকুল ইসলাম অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে সিএমএস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অনুপস্থিতিতে ভাগিনা এড. শামিম হোছাইন সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

সরেজমিনে গেলে সফিকুল ইসলামের ছেলে রাছেল বলেন, তার বাবা ওই জমি সাব-কাবলামূলে কিনেছেন কয়েক বছর আগে। বিগত কিছুদিন থেকে ওই জমি দখলের চেষ্টা করে যাচ্ছেন এলাকার আবু তাহের ও তার ছেলে সোহেল। পরে লক্ষ্মীপুর আদালত ১৪৪ ধারা জারি করে ওই জমিতে। প্রতিপক্ষ তাহের গংরা আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সম্প্রতি জমির বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে তার জমিটি দখলের চেষ্টা চালায়। এছাড়া বাগানে থাকা নারিকেল, সুপারী, কলা, আমড়াসহ বিভিন্ন ফল লুট করে নিয়ে যায়। এতে তাদের লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করে আবু তাহের বলেন, কে বা কারা গাছ কেটেছে আমার জানা নেই।

সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোতাহের জানান, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। উভয়পক্ষকে থানায় আসতে বলা হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com