• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বুধবার | ২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | শীতকাল | রাত ৯:৩২
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন

৬:২৮ অপরাহ্ণ, নভে ০৮, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে একটি হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন করেছে দু’পক্ষ। হত্যা মামলার বাদি পক্ষ এবং হত্যা মামলায় অভিযুক্ত আসামী পক্ষ রবিবার দুপুরে পৃথক এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি হত্যা মামলার চার্জশিটভূক্ত আসামী চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি তাজুল ইসলাম ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

জানা গেছে, ২০১৪ সালে রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক কাজী মামুনুর রশিদ বাবলুর ভাগিনা শিমুলকে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

২১ এপ্রিল রাতে খুনিরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। পিবিআইর তদন্তে তাজুলের বিরুদ্ধে হত্যার সাথে সম্পৃক্ততার বিষয়টি উঠে আসে। গত ৪ নভেম্বর র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ ঘটনার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবর হয় তাজুল সমর্থকরা। অন্যদিকে শিমুল হত্যার ঘটনায় তাজুলের বিচার চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সবর থাকে আরেক পক্ষ।

আর ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামীগ ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা দু’ ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। একপক্ষ খুনীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে, অন্যপক্ষ খুনীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিচারের দাবি তুলেছে।

এর জের ধেরে রবিবার দু’পক্ষই মানববন্ধনের আয়োজন করে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে চন্দ্রগঞ্জ বাজারে বিপুল পরিমাণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিলো। তবে আওয়ামীলীগ একটি অংশ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকর্মীরা খুনির পক্ষে অবস্থান নেওয়া তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে জনসাধারণের মাঝে।

বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে চন্দ্রগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আয়োজনে তাজুল ইসলামের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব ইমতিয়াজ, চন্দ্রগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এম আলাউদ্দিন, চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা শিপন খলিফা, যুবলীগের আহবায়ক সাহাব উদ্দিন, যুগ্ম-আহবায়ক আবদুর রাজ্জাক রিংকু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন ও চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক রিয়াজ হোসেন জয়সহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা তাজুলকে নির্দোষ দাবি করে এদিকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে দাবি করছেন।

এদিকে, তাজুল ইসলামসহ হত্যা মামলার ৭ আসামির বিচারের দাবিতে দুপুর ১টার দিকে চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে মানববন্ধন করেছে আরেক পক্ষ। এতে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মুনছুর আহম্মদ, চন্দ্রগঞ্জ থানা ১৪ দলীয় ঐক্য জোটের আহবায়ক সাবির আহমেদ, চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেন, চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী সোলাইমান, চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক কাজী মামুনুর রশিদ বাবলু ও শ্রমিক লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

উল্লেখ্য, লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে ২০১৪ সালের ২১ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজনৈতিক বিরোধের জেরে জিসান বাহিনীর সন্ত্রাসীরা ছাত্রলীগ নেতা কাজী বাবলুর বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি করে। এতে বাবলুর ভাগিনা প্রতাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র রবিউল ইসলাম শিমুল গুলিবিন্ধ হয়ে নিহত হয়।

অন্যদিকে, একই রাতে চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপি নেতা তোফায়েল আহমেদের বাড়িসহ দুটি বাড়িতে আগুন দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তোফায়েলের নাতি ফরহাদ হোসেন মামুন আগুনে পুড়ে মারা যায়। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে করে নাসির ও জিসান বাহিনীর মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি ও সংঘর্ষে এ দুই জন প্রাণ হারায়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয় বেশ কয়েকজন।

এ ঘটনায় কয়েকদিন পর সদর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামী করে ভাগিনা হত্যার মামলা দায়ের করে কাজী বাবলু। পরে আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত মামলাটি নোয়াখালীর পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। তদন্তে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে প্রতিবেদন দাখিল করে পিবিআই। ওই মামলায় তাজুল ইসলাম ৪ নম্বর চার্জশিটভূক্ত আসামী। গত ৪ নভেম্বর তাকে র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা গ্রেফতার করে চন্দ্রগঞ্জ থানায় সোপর্দ করে। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কাজী মামুনুর রশিদ বাবলু বলেন, তাজুল ইসলাম বিএনপির সন্ত্রাসী জিসান বাহিনীর সক্রিয় সদস্য ছিলো। সে বিএনপির রাজনীতি করতো। তিনি একজন খুনী। কিন্তু তাকে স্বেচ্ছাসেবকলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আমি আমার ভাগিনার খুনীদের বিচার দাবি করছি।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com