• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • সোমবার | ১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | বসন্তকাল | রাত ৪:২৭
  • আর্কাইভ

লক্ষ্মীপুরের উ. হামছাদীতে বিদ্যালয় কক্ষে প্রধান শিক্ষক মাসুদের ইয়াবা সেবন!

৩:১০ অপরাহ্ণ, জানু ২৬, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান মাসুদ আলমকে ইয়াবা সেবনরত অবস্থায় হাতেনাতে আটক করেছে এলাকাবাসী। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে তিনি আটক হন। পরে বিদ্যালয় থেকে অব্যাহতি দেওয়া শর্তে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা মাসুদকে ছেড়ে দেয়।

এলাকাবাসী জানায়, গত ২০-২৫ দিন প্রতিরাতে বিদ্যালয়ে এসে নিজকক্ষে তিনি ইয়াবা সেবন করতেন। আর ঘটনার পর থেকেই ইয়াবা সেবনের সরঞ্জামাদিসহ মাসুদ আলমের ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ২০-২৫ দিন ধরে প্রধান শিক্ষক মাসুদ প্রতি রাতেই বিদ্যালয় এসে নিজ কক্ষে সময় কাটান। এতে স্থানীয়দের মাঝে কৌতুহল সৃষ্টি হয়। এ প্রেক্ষিতে সোমবার রাতে এলাকাবাসী আগ থেকেই উৎ পেতে ছিলেন। রাত প্রায় ৮টার দিকে মাসুদ বিদ্যালয়ে এসে নিজকক্ষে ঢুকে ইয়াবা সেবন শুরু করলে এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষকের কক্ষে ঢুকে হাতেনাতে তাকে আটক করে। বিষয়টি তাৎক্ষনিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতিসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানানো হয়। পরে বিদ্যালয়ের সম্মানের বিষয়টি বিবেচনা করে সভাপতি ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের পরামর্শে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এসময় মাসুদ এ বিদ্যালয় থেকে চলে যাওয়ার আশ্বাস দেয়।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফরিদ উদ্দিন বিএসসি বলেন, আমাকে ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজন কল দিয়েছেন। বিদ্যালয়ের সম্মান রক্ষার্থে আপাতত তাকে ছেড়ে দিতে বলেছি। পরিচালনা কমিটির বৈঠকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে বক্তব্য জানতে প্রধান শিক্ষক মাসুদ আলমকে ফোন দিলে তার সহধর্মীনি কল রিসিভ করেন। তার সহধর্মীনি জানান, মাসুদ ফোন রেখে ঘর থেকে বের হয়ে গেছে।

উত্তর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমরান হোসেন নান্নু বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। তবে বিস্তারিত জানা নেই। এ ব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছি।
তবে এ ব্যাপারে সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা পরিমল কুমার ঘোষ জানান, ঘটনাটি আমাকে কেউ জানায়নি। এ ব্যপারে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মহসিন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল গিয়েছি। তবে এর আগেই এলাকাবাসী অভিযুক্তকে ছেড়ে দিছে। এ কারণে আমরা কোন ব্যবস্থা নিতে পারিনি।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com