• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • রবিবার | ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | রাত ১২:৩৫
  • আর্কাইভ

রায়পুরে সাত বছরের শিশু হত্যার অভিযোগে স্বামী-স্ত্রী আটক

৮:৪৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ০২, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবদেক : লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পপি সাহা নামে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেল চারটার দিকে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। উপজেলার বামনী ইউনিয়নের সাগরদী গ্রামের সাহা বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার দায়ে রুপা বেগম ও তার স্বামী এমরান হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।
নিহত পপি ওই বাড়ির সৌদী প্রবাসী নির্মল সাহার মেয়ে। স্বর্ণের লোভে রুমা বেগম (২৬) নামে ওই বাড়ির ভাড়াটিয়া নারী শিশুটিকে হত্যা করেছে বলে জানায় স্বজন ও স্থানীয়রা।
পপির দাদী নেস্পতি সাহা বলেন, সকাল সাড়ে ১০টা থেকে তার নাতনী নিখোঁজ ছিলো। বিভিন্ন স্থানে তাকে খোঁজাখুজি করা হয়। দুপুর আড়াইটার দিকে তাদের ঘরের পাশে প্রবাসী আবুল কাশেমের ঘরে পপির লাশের সন্ধান পায় বাড়ির লোকজন। ওই ঘরে প্রতিবেশী রুমা ভাড়া থাকতো। পপির কানে থাকা প্রায় ৬ আনা স্বণের দুলের লোভে তাকে রুমা বেগম গলা টিপে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
বাড়ির লোকজন জানায়, অভিযুক্ত রুমা বেগম তার স্বামী এরমানকে সাথে নিয়ে দুই মাস থেকে আবুল কাশেমের ঘরে ভাড়া থাকতো। পপি সাহা সব সময় তার কাছে আসাযাওয়া করতো। পপি নিখোঁজ হওয়ার পর বিভিন্ন স্থানে খোঁজ শুরু করলে রুমার গতিবিধি সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে সে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বাড়ির লোকজন তাকে ধরে ফেলে। এসময় তার ঘরে ঢুকে খাটের পাশে পপির মৃতদেহ দেখতে পায় তারা। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে এবং রুপা বেগমকে থানায় নিয়ে যায়।
তারা জানান, রুমা বেগম শিশু পপি সাহাকে হত্যার পর স্বর্ণের দুল পাশ্ববর্তী একটি বাজারে বিক্রি করে পুনরায় ঘরে এসে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল জানায়, শিশু পপির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রুমা বেগম ও তার স্বামী এমরানকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com