• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বুধবার | ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | বর্ষাকাল | সকাল ১০:১৩
  • আর্কাইভ

রামগঞ্জে কাভার্ড ভ্যানে ভ্রাম্যমাণ অবৈধ সিএনজি ফিলিং স্টেশন !

১:০৩ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার :

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে কাভার্ড ভ্যানে ভ্রাম্যমাণ অবৈধ সিএনজি ফিলিং স্টেশন বসিয়ে বিপজ্জনকভাবে গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে। এতে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, কাভার্ড ভ্যানে বড় বড় সিলিন্ডার যুক্ত করে তাতে গ্যাস মজুদ করে জনবসতিপূর্ণ পৌরসভার আঙ্গারপাড়ার জোড় কবরস্থান এলাকায় স্বদেশ গ্লোরী সিভিজি গ্যাস স্টেশন বিপজ্জনকভাবে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও অন্যান্য যানবাহনে এ গ্যাস বিক্রি করছে।

এসব কাভার্ড ভ্যান যেখানে দাঁড়ায় সেখানে ফিলিং স্টেশনের রূপ নেয়। এমতাবস্থায় যে কোনো মুহূর্তে কাভার্ড ভ্যানে সংরক্ষিত বিশাল আকারের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হলে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির আশংকা করা হচ্ছে। তারপরও গত ২৪দিন ধরে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের বাধা ছাড়াই এভাবে অবৈধ পন্থায় গ্যাস বিক্রি করে চলেছে একটি চক্র।

বাখরাবাদ গ্যাসের নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করেই প্রভাবশালী ব্যক্তিরা এটি করছেন। এতে যে কোনো সময় মারাত্মক দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় লোকজন।

এদিকে ওই ভ্রাম্যমাণ প্রক্রিয়ায় গ্যাস বিক্রি বন্ধ করতে রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের চিঠি দেওয়া হয়েছে। গত সোমবার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির লক্ষ্মীপুর এরিয়া অফিসের ব্যবস্থাপক (বিক্রয়) আলতাফ হোসেন এ চিঠি দেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রামগঞ্জ পৌরসভার আঙ্গারপাড়ার জোড় কবরস্থান এলাকায় প্রভাবশালী ৫ ব্যক্তি স্বদেশ গ্লোরী সিভিজি গ্যাস স্টেশন করে। ১৯ ফেব্রয়ারি এর উদ্বোধন করা হয়। এরপর থেকে তারা বিপজ্জনকভাবে কাভার্ড ভ্যানে স্থাপিত সিলিন্ডারের মাধ্যমে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস বিক্রি করছেন। নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করায় যে কোনো সময় মারাত্মক দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জানতে চাইলে স্বদেশ গ্লোরী সিভিজি গ্যাস স্টেশনের মালিক পক্ষের প্রতিনিধি মো. মামুন বলেন, সারা দেশে এমন ১৭ টি গ্যাস স্টেশন রয়েছে।

প্রযুক্তির মাধ্যমে বায়ো গ্যাস সরবরাহ করায়, এখানে ঝুঁকির কিছু নেই। সরকার এ ধরণের উদ্যোক্তাদের উৎসাহ দিচ্ছে।

রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার রেজাউল করিম বলেন, ভ্রাম্যমাণ সিএনজি গ্যাস পাম্পের বিষয়টি জেনেছি। এনিয়ে দুই পক্ষের সঙ্গেই কথা বলা হচ্ছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির লক্ষ্মীপুর এরিয়া অফিসের ব্যবস্থাপক (বিক্রয়) আলতাফ হোসেন বলেন, ভ্রাম্যমাণ প্রক্রিয়ায় গ্যাস সরবরাহ করা বিপদজ্জনক। যে কোনো সময় ভয়াবহ বিস্ফোরণ হতে পারে। এ প্রক্রিয়ায় গ্যাস বিক্রি বন্ধ করতে রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের চিঠি দেওয়া হয়েছে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com