• ঢাকা,বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার | ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | বসন্তকাল | বিকাল ৪:৩৯
  • আর্কাইভ

জমি বিক্রি না করায় উন্নয়নকাজে বাঁধা, কমলনগরে পুলিশ সদস্যেকে জড়িয়ে অপপ্রচারের অভিযোগ

৪:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ২২, ২০২০

মো. নুরনবী, কমলনগর : লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চর ঠিকা গ্রামের একখন্ড জমি বিক্রি না করায় জমির মালিকের নামে বিভিন্ন মাধ্যমে অপপ্রচার করে ব্যক্তিগত ও সামাজিক মানমর্যাদা ক্ষুণ্ণ করার অভিযোগ করেছেন ওই জমির মালিক ভুক্তভোগী মো ইউছুফ।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) কমলনগর প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে তিনি সাংবাদিকদের নিকট এসব অভিযোগ করেন। ইউছুফ উপজেলার চর ঠিকা গ্রামের আমিন উল্যার ছেলে এবং বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত একজন সদস্য।

ইউছুফ জানান, স্থানীয় এলাকাবাসী মো. শামছুল হক গং আমার ক্রয়কৃত এবং দখলীয় চর ঠিকা মৌজার কয়েক শতক জমি ক্রয় করার প্রস্তাব করেন। কিন্ত আমি জমিটি বিক্রয় করার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলে তারা আমার বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র শুরু করে। আমি উক্ত জমিতে বাড়ি এবং পুকুর খনন করার জন্য সরকারি বিধিবিধান অনুসরণ ও ফি জমা দিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করি।

যার প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমার আবেদনের প্রাপ্যতা বিবেচনা ও সরেজমিনে তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত করে আমাকে উক্ত জমিতে অবাণিজ্যিক ও প্রয়োজনীয় বালু উত্তোলন করে পুকুর তৈরির অনুমতি প্রদান করেন। যার প্রেক্ষিতে আমি আমার চর ঠিকা মৌজার ৪৩৪ নং খতিয়ানের ৫৭৭ নং দাগে একটি পুকুর খনন করি।

কিন্ত মো: শামছুল হক গং বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার লক্ষ্যে তারা আমার ও আমার পরিবারের নাম জড়িয়ে কুৎসিত ভাষায় সামাজিক গণমাধ্যমে নানা অপপ্রচার শুরু করে। গণমাধ্যমে ভুল তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে কাল্পনিক গল্প রচনা করে সংবাদ পরিবেশন করায়। যা আমার ব্যক্তিগত ও সামাজিক মানমর্যাদা ক্ষুন্ন হয়েছে।

বিষয়টি জানতে চেয়ে শামছুল হকের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মোবারক হোসেন বলেন, পুকুর করার জন্য অবাণিজ্যক বালু উত্তোলনের আইন আছে, ওই আইনের আলোকে এবং যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে উক্ত ব্যক্তিকে বালু উত্তোলনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ



Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com